চট্রগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশ বড় ধরণের বিপর্যয়ের সম্মুখীন

আফগানদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সঙ্গে যোগ হলো বাংলাদেশের বাজে ব্যাটিং। চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে তাই ১৪৮ রান পিছিয়ে যখন বাংলাদেশের হাতে আছে মাত্র ২টি উইকেট। ৭ম উইকেট পতনের পর কোনোরকমে নবম উইকেট জুটিতে বাংলাদেশ দলের দুই টেল এন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন ও তাইজুল ইসলাম ৪৮ রানের একটা পার্টনারশীপ গড়ে তোলে যেটাই বাংলাদেশ দলের সর্বোচ্চ উইকেট জুটি। শেষ পর্যন্ত ১৯৪ রানে শেষ হয় দ্বিতীয় দিনের খেলা। তৃতীয় দিনের শুরুটা হবে মোসাদ্দেক হোসেন ও তাইজুল ইসলাম এর হাত ধরে। আর বাইরে থাকবে নবাগত নাঈম ইসলাম। এদের উপর ভর করে বাংলাদেশ দল কতদূর যেতে পারে সেটাই এখন দেখার বিষয়।
ব্যর্থ সাকিব – মুশফিক – মাহমুদুল্লাহ : বাংলাদেশের তিন ব্যাটিং কাণ্ডারির সম্মিলিত রানের সংখ্যা মাত্র ১৮। একজন ১১,মাহমুদুল্লাহ ৭ এবং মুশফিক কোন রানের দেখায় পান নি। এ তিনজনের সাথে ব্যর্থ হয়েছেন ওপেনার সাদমান। তিনিও কোন রান করার আগেই আউট হয়ে যান। তবে ব্যাতিক্রম ছিলেন মুমিনুল যিনি দলের হয়ে একমাত্র ব্যাটসম্যান হাফ সেঞ্চুরি করেছেন আর লিটন দাস যার ব্যাট থেকে এসেছে মূল্যবান ৩৩টি রান।
বৃষ্টির হানা
প্রথম দিনের মতো দ্বিতীয় দিনেও বৃষ্টি হানা দেয় খেলার মাঝে। যদিও এর সময় কাল ছিল সর্বোচ্চ ১৫ মিনিট। বৃষ্টির তীব্রতায় স্ট্যাম্প ও সরিয়ে ফেলা হয়েছিল তবে খুব তাড়াতাড়িই আবার মেঘ সরে রোদ ঝলমল হয়ে উঠে জুহুর আহমেদ স্টেডিয়াম।
দিনটি রশিদ খান এবং আফগানিস্তানের

ব্যাট হাতে দারুণ ফিফটিতে আফগানিস্তানের স্কোরকে নিয়ে গেছেন সাড়ে তিনশ রানের কাছে। এরপর বোলিংয়েও চার উইকেট নিয়ে রশিদ খান ভোগালেন বাংলাদেশকে। অধিনায়কের দুর্দান্ত অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে আফগানিস্তান।

আফগানিস্তান ১ম ইনিংস: ৩৪২

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৬৭ ওভারে ১৯৪/৮ (সাদমান ০, সৌম্য ১৭, লিটন ৩৩, মুমিনুল ২৭*, সাকিব ১১, মুশফিক ০, মাহমুদউল্লাহ ৭, মোসাদ্দেক ৪৪*, মিরাজ ১১, তাইজুল ১৪*; ইয়ামিন ১০-২-২১-১, নবি ২০-৬-৫৩-২, জহির ৯-১-৪৬-০, রশিদ ১৮-৩-৪৭-৪, কাইস ৮-২-২২-১)

আফগানদের সর্বোচ্চ সংগ্রহ কোন টেস্ট ম্যাচে

আজ দ্বিতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নেমে আফগানরা ছাড়িয়ে গেছে টেস্টে নিজেদের সর্বোচ্চ স্কোর। আগের দুই টেস্টে আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর ছিল আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৩১৪। এখন তাদের সর্বোচ্চ স্কোর দাঁড়াল ৩৪২ রান।

 

বাংলাদেশ মহিলা ক্রিকেট দল দ্বিতীয়বারের মতো টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করলো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: